ভোলায় সন্তানের দেয়া আগুনে পিতা-মাতার ঘর পুড়ে ছাই

0
10

ভোলার বোরহানউদ্দিনে পিতা-মাতা ও বোনকে মধ্যে যুগিয় কায়দায় নির্যাতন করে বসত ঘরের মালামাল লুট করে নিয়ে বাকি মালপত্রে আগুন লাগিয়ে দিলেন দুই ছেলে। এতে গুরুতর আহত হয় চারজন।

- Advertisement -

আহতদের ভোলা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার কুতুবা ইউনিয়নের ১নং ওয়াডে। ওই পিতা-মাতার বড় ছেলে কালাম জানান, তার বাবা অহিদ হাজী তাদের সম্পত্তি বোনদের অংশ ভাগ বাটোয়ারা করে দেন।

এতে ক্ষিপ্ত হয় অপর দুই ভাই আল-আমিন ও কামাল। এরই ধারাবাহিকতায় শুক্রবার সকালে আল-আমিন ও কামাল ঢাকা থেকে এসে হঠাৎ করে তার মা সুফিয়া খাতুন, বাবা অহিদ হাজী, বোন নাছিমা বেগম ও বোনের ছেলে হামিমকে এলোপাথারী মারধর করতে থাকে।

এক পর্যায়ে সবাই গুরুতর আহত অবস্থায় ঘরে পড়ে থাকলে তাদের টানা হেস্তা করে ঘরের বাইরে বের করে ঘরের স্বর্ণালংকার ও টাকা পয়সা লুটে নিয়ে ঘর ভাংচুর করে ঘরের আসবাপ পত্রে আগুন ধরিয়ে দেয় তারা।

আহতদের অবস্থা গুরুতর হওয়ায় স্থানিয়রা তাদের উদ্ধার করে ভোলা জেলা সদর হাসপাতালে নিয়ে যায়। ওই বাড়ির লোকজন জানায়, দুই ভাইয়ের হামলায় মুহুর্তের মধ্যে পুরো এলাকায় আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। তারা বাঁধা দিতে আসলে তাদের উপর চড়াও হয়। সরে জমিনে গিয়ে দেখা যায় ঘরের আসবাপ পত্রে আগুন জ্বলছে।

শত শত এলাকাবাসি ঘটস্থলে এসে ভির জমিয়েছে। তারা প্রশাসনের কাছে এ নেক্কার জনক ঘটনার বিচার দাবি করেছেন। এ ঘটনায় দোষি আল-আমিন ও কামালের সাথে যোগাযোগ করার চেষ্টা করলে তাদের এলাকায় পাওয়া যায়নি।

বোরহানউদ্দিন থানার ওসি অসীম কুমার সিকাদার এ নেক্কার জনক ঘটনায় দুঃখ প্রকাশ করে জানান, দোষিদের বিরুদ্ধে কঠোর আইনি ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

(Visited 1 times, 1 visits today)

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here