ভাঙা থেকে বরিশাল হয়ে পায়রা সমুদ্র বন্দর পর্যন্ত যাবে রেল

0
42

Sharing is caring!

- Advertisement -

অনলাইন ডেস্ক :: রেলমন্ত্রী নূরুল ইসলাম সুজন বলেছেন, ঢাকা-চট্টগ্রাম রুটে ইলেক্ট্রিক ট্রেন চলাচল করবে। এ জন্য নারায়ণগঞ্জ থেকে ঢাকা হয়ে চট্টগ্রাম পর্যন্ত ‘ইলেক্ট্রিক ট্রাকশন (ওভারহেড ক্যাটেনারি ও সাবস্টেশন নির্মাণ) প্রবর্তনে সম্ভাব্যতা সমীক্ষা এবং বিশদ ডিজাইন’ শীর্ষক প্রকল্প হাতে নেয়া হয়েছে।

গত ৭ জুলাই পরিকল্পনা কমিশনে অনুষ্ঠিত প্রকল্প মূল্যায়ন কমিটির সভার সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, গত ২৯ সেপ্টেম্বর সমীক্ষা প্রস্তাব রেল মন্ত্রণালয়ে পাঠান হয়। ওই সমীক্ষা প্রকল্পের প্রতিবেদনের ভিত্তিতে বিনিয়োগ প্রকল্প গ্রহণ এবং বাস্তবায়ন হলে তা দেশে রেলপথের আধুনিকায়নে বিশেষ ভূমিকা রাখবে।

মঙ্গলবার (২৮ জানুয়ারি) জাতীয় সংসদে সুনামগঞ্জ-৪ আসনের সংসদ সদস্য পীর ফজলুর রহমানের প্রশ্নের জবাবে রেলমন্ত্রী এ কথা জানান।

বরিশালে যাচ্ছে রেল
মহিবুর রহমানের (পটুয়াখালী-৪) প্রশ্নের জবাবে রেলমন্ত্রী বলেন, বরিশাল জেলা রেল নেটওয়ার্কের আওতায় আনতে ফরিদপুরের ভাঙা থেকে বরিশাল হয়ে পায়রা সমুদ্র বন্দর পর্যন্ত রেলপথ নির্মাণের উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। এ প্রকল্পে বিশদ নকশা প্রণয়ন ও দরপত্র দলিল তৈরিসহ ভাঙা জংশন (ফরিদপুর) হয়ে বরিশাল দিয়ে পায়রা বন্দর পর্যন্ত রেললাইন তৈরির সম্ভাবতা সমীক্ষা প্রস্তাব ২০১৬ সালের ৯ অক্টোবর পরিকল্পনামন্ত্রী অনুমোদন করেন।

২০১৮ সালের ৫ ডিসেম্বর পরামর্শক প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে চুক্তি হয়েছে। বর্তমানে মাঠ পর্যায়ে সমীক্ষা কার্যক্রম ৫১ শতাংশ শেষ হয়েছে। এ লাইনের আওতায় ভাঙা-টেকেরহাট-মাদারীপুর-কালকিনি-গৌরনদী-আগৈলঝাড়া-উজিরপুর-বরিশাল-বাকেরগঞ্জ-লেবুখালী-পটুয়াখালী সদর-কুকুয়া-আমতলী-পায়রা বন্দর হয়ে পায়রা ইয়ার্ড পর্যন্ত সংযুক্ত করা হয়েছে।

তিনি জানান, বিশদ নকশা প্রণয়নসহ সম্ভাব্যতা সমীক্ষা চূড়ান্তভাবে অনুমোদিত এলাইনমেন্ট অনুযায়ী ভাঙা থেকে পায়রা পর্যন্ত রেললাইন তৈরির উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। এলাইনমেন্ট অনুযায়ী, রেললাইনটি কলাপাড়া অতিক্রম করবে। প্রথম পর্যায়ে এ কাজটি শেষ হলে ভবিষ্যতে এ লাইন কুয়াকাটা সমুদ্র বন্দর পর্যন্ত সম্প্রসারণের পরিকল্পনা রয়েছে বলে জানান মন্ত্রী।

আবদুল মান্নানের এক প্রশ্নের জবাবে রেলমন্ত্রী জানান, বর্তমানে দেশের ৪৪ জেলায় রেলপথ রয়েছে। তবে সব জেলায় রেল সংযোগ স্থাপন করে জনসাধারণের স্বল্প খরচে নিরাপদ ও স্বাচ্ছন্দ্যময় পরিবহন সেবা দিতে রেলওয়ে কাজ করছে। এটি বাস্তবায়নে বিভিন্ন প্রকল্প গ্রহণ করা হয়েছে।

তানভীর ইমামের এক প্রশ্নের জবাবে রেলমন্ত্রী জানান, বর্তমান সরকারের আমলে ২০০৯ সাল থেকে আজ পর্যন্ত দেশে ৯৮টি রেলস্টেশন তৈরি এবং ১৮৫টি স্টেশন পুনর্নির্মাণ করা হয়েছে।’

(Visited 1 times, 1 visits today)

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here