নগরীর আর্য্য বেকারিতে বিষাক্ত কেমিক্যাল দিয়ে তৈরি হচ্ছে নিম্নমানের খাবার ll

0
747

Sharing is caring!

স্টাফ রিপোর্টার।।

নগরীর আর্য্য বেকারিতে বিষাক্ত কেমিক্যাল দিয়ে তৈরি হচ্ছে বেকারী সামগ্রী। প্রতিনিয়ত নোংরা পরিবেশে খাবার উৎপাদন করা হচ্ছে ওই প্রতিষ্ঠানটিতে। পাশাপাশি পণ্য উৎপাদনের সময়সীমা প্যাকেটের গায়ে তুলে না ধরার অভিযোগ রয়েছে। এমনিভাবে নিম্নমানের সামগ্রী উৎপাদন পরবর্তী প্রতারণার মাধ্যমে বিক্রি করে রাতারাতি ধনকুবের বনে গেছেন মালিক আব্দুুলাহ আল ফারুক রাজু। কিন্তু এবার তিনি ধরা খেয়ে গেলেন। গত ১৪ মার্চ বরিশাল জেলা প্রশাসনের ভ্রাম্যমাণ আদালত নগরীর পলাশপুর ব্রীজের ঢালে আর্য্য বেকারির কারখানায় হানা দেয়। সেখানে অভিযান চালিয়ে সামগ্রী উৎপাদনে ব্যাপক অনিয়মের অভিযোগ মেলে প্রতিষ্ঠান কর্মকর্তা আব্দুুলাহ আল ফারুক রাজুর বিরুদ্ধে। ওই অভিযোগের দায়ে ভ্রাম্যমাণ আদালতের বিচারক নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মেহেনাজ ফেরদৌস ২৩ হাজার টাকা তৎণাৎ জরিমানা আদায় করেন। এই বেকারির বিরুদ্ধে বিষাক্ত কেমিক্যাল অর্থাৎ জেল, পঁচা ডিম, নোংরা পরিবেশে খাবার উৎপাদন ও ভোক্তা অধিকার আইন অমান্য করে প্যাকেটের গায়ে উৎপাদন এবং মেয়াদোত্তীর্ণ সময়সীমা তুলে না ধরার। তাছাড়া মূল্য তুলে না ধরে ক্রেতাদের কাছ থেকে বাড়তি টাকা হাতানোরও অভিযোগ পাওয়া যায়। এ তথ্য জেলা প্রশাসনের ওই ভ্রাম্যমাণ আদালতের পেশকার হেমায়েত উদ্দিন নিশ্চিত করেছেন। সূত্রমতে, প্রতিষ্ঠানটির শুরু থেকে একইভাবে নিম্নমানের বেকারি সামগ্রী উৎপাদন করে যাচ্ছে মালিক রাজু। অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে তৈরি এসব সামগ্রীর মধ্যে রয়েছে রুটি, বিস্কুট, চানাচুর ও কেক। যা মানবদেহের জন্য অত্যন্ত তিকর বলে মত দিয়েছেন বিশেষজ্ঞ ডাক্তাররা। তাদের মতে- এসব ভেজাল সামগ্রী দেহের গুরুত্বপূর্ণ অঙ্গ-প্রত্যঙ্গগুলো অতিসহজে বিকল করে তুলতে বেশ ভূমিকা রাখে। বিশেষ করে এসব সামগ্রী কিডনীকে দুর্বল করে ফেলে।’ এ বিষয়ে বরিশাল সিভিল সার্জন এএফএম সফিউদ্দিন জানান- “এসব অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে তৈরী আর ভেজাল তেল ও নকল আটা ময়দা দিয়ে তৈরী এসব সামগ্রী খেলে শিশুদের যেমন ডায়রিয়া, পেটের পিড়াসহ বিভিন্ন ধরনের অসুখ হওয়া সম্ভাবনা রয়েছে, তেমনি বয়স্কদের ও ডায়বেটিস আর প্রেশারের ঝুকিতো বিদ্যমান। তাই এসব নিম্নমানের বেকারীতে উৎপাদিত খাদ্য পরিহার করাটা স্বাস্থ্যের জন্য উপকারী বলে মনে করছেন তিনি। এেেত্র আশ্চর্য্যের বিষয় হচ্ছে- প্রতিষ্ঠান মালিকও রাজু নিজেও ভেজাল পণ্য বিক্রির বিষয়টি স্বীকার করেছেন। কিন্তু কেন বিক্রি করছেন এমন প্রশ্নে তিনি বলেন- বরিশালের সকল বেকারিতেই নিম্নমানের কেমিক্যাল দিয়ে খাদ্য সামগ্রী তৈরি করা হয়।
(Visited 3 times, 1 visits today)

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here