যুদ্ধের ফাঁকে বিয়ে, ২০ বছরের অপেক্ষা ফুরালো দুই ইউক্রেনীয় সৈন্যের

0
20

Sharing is caring!

রাশিয়ার সঙ্গে যুদ্ধের মধ্যেই বিয়ের পিঁড়িতে বসলেন ইউক্রেনের প্রতিরক্ষা বাহিনীর দুই সদস্য। প্রায় ২০ বছর একসঙ্গে বসবাস করলেও এতদিন বিয়ে করা হয়ে ওঠেনি তাদের। কিন্তু যুদ্ধের কারণে ভবিষ্যৎ নিয়ে অনিশ্চয়তা দেখা দেওয়ায় দ্রুত শুভ কাজটা সেরে ফেলার সিদ্ধান্ত নেন এ যুগল।

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়া ছবি ও ভিডিও দেখা যায়, বিয়ের পোশাকের বদলে সামরিক ইউনিফর্ম পরেই বিয়ে করছেন ওই দুই ইউক্রেনীয় সৈন্য।

রয়টার্সের সাংবাদিক ফিল স্টুয়ার্টের টুইট থেকে জানা যায়, গত সোমবার কিয়েভের একটি চেকপয়েন্টে আংটি বদল করেছেন ইউক্রেনীয় প্রতিরক্ষা বাহিনীর সদস্য ভ্যালেরি ফিলিমনভ ও লেসিয়া ইভাশচেঙ্কো। এসময় পাশে ছিলেন তাদের বেশ কিছু সহযোদ্ধা।

আইরিশ সম্প্রচারমাধ্যম আরটিই জানিয়েছে, ভ্যালেরি-লেসিয়া প্রায় ২০ বছর ধরে একসঙ্গে রয়েছেন, সংসারে তাদের ১৮ বছর বয়সী একটি মেয়েও রয়েছে। শান্তিপূর্ণ জীবনে এতদিন আনুষ্ঠানিকভাবে বিয়ের প্রয়োজনবোধ করেননি এ যুগল। কিন্তু যুদ্ধের দামামা বেজে উঠতেই মনোভাব বদল করেন তারা।

বর ভ্যালেরি বলেন, একটা চ্যালেঞ্জিং সময় পার করার কারণে আমরা বিয়ের সিদ্ধান্ত নিয়েছি। আপনি কখনোই বলতে পারবেন না, কাল কী ঘটবে। সেজন্য এটা (বিয়ে) তাড়াতাড়ি করে ফেলাই ভালো।

বিয়ের কনে লেসিয়া বলেন, আমাদের অবশ্যই বতর্মানটাকে উপভোগ করতে হবে। মানসিকভাবে সুস্থ থাকতে এই মুহূর্তটা উপভোগ করা দরকার।

রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের নির্দেশে গত ২৪ ফেব্রুয়ারি ইউক্রেন আক্রমণ করে রুশ বাহিনী। এতে সাবেক সোভিয়েত দেশটিতে ২০ শিশুসহ অন্তত ৩৬৪ জন বেসামরিক লোক নিহত হয়েছে বলে জানিয়েছে জাতিসংঘ। যুদ্ধে রাশিয়ার কয়েক হাজার সেনা হতাহত ও বহু সামরিক সরঞ্জাম ধ্বংস করা হয়েছে বলে দাবি করেছে ইউক্রেনীয় কর্তৃপক্ষ।

(Visited 1 times, 1 visits today)

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here