বরিশালে গৃহবধূকে ধর্ষণ চেষ্টার পরে মারধর, পিতা-পুত্র আটক

0
8

Sharing is caring!

- Advertisement -

গৃহবধূকে ধর্ষণ চেষ্টার পরে মারধরের অভিযোগে বরিশালের উজিরপুরে পিতা-পুত্রকে গ্রেফতার করেছে থানা পুলিশ। সোমবার (১৩ মে) সকালে পুলিশ তাদের গ্রেফতার করে দুপুরে বরিশাল আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে পাঠিয়েছে।

গ্রেফতারকৃতরা হচ্ছে উপজেলার বামরাইল ইউনিয়নের উত্তর মোড়াকাঠি গ্রামের শহিদ বেপারি (৩৫) ও তার বাবা হোচেন বেপারি (৬০)।

মামলার এজাহারের বরাত দিয়ে পুলিশ জানিয়েছে, উপজেলার উত্তর মোড়াকাঠী গ্রামের এক সন্তানের জননী ওই গৃহবধূ গত ৬ মে রাতে প্রতিদিনের ন্যায় নিজ ঘরে ঘুমাচ্ছিলেন। ওই দিন তার স্বামী বাড়িতে না থাকার সুযোগে রাত ২টার দিকে একই এলাকার শহিদ বেপারী ঘরের বেড়া কেটে ঘরে প্রবেশ করে এবং গৃহবধূকে ধর্ষণের চেষ্টা চালায়।

এ সময় ওই গৃহবধূ ডাকচিৎকার দিলে শহিদ পালিয়ে যায়। এ ঘটনায় স্থানীয়ভাবে বিচারের দাবীতে ওই গৃহবধূ শহিদ বেপারির বিরুদ্ধে গ্রামের মসজিদ কমিটির কাছে লিখিত অভিযোগ করেন।

বিষয়টি জানতে পেরে ক্ষিপ্ত হয়ে গত ১০ মে দুপুরে শহিদ বেপারি, তার বাবা হাচেন বেপারি, ভাই সমুন বেপারিসহ বেশ কয়েকজন মিলে ওই গৃহবধূকে বেধরক মারধর করে। এতে ওই গৃহবধূ গুরুত্বর আহত হয়ে উজিরপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি হয়।

পরবর্তীতে রোববার (১২ মে) রাত সাড়ে ৮টার দিকে ওই গৃহবধূ বাদী হয়ে শহিদ বেপারি, তার বাবা, ভাই ও স্ত্রীসহ আট জনের নাম উল্লেখ করে উজিরপুর মডেল থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা উজিরপুর মডেল থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) জসিম উদ্দিন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, মামলা দায়েরের পরপরই সোমবার (১৩ মে) সকালে অভিযান চালিয়ে প্রধান আসামী শহিদ বেপারি ও তার বাবা হাচেন বেপারিকে গ্রেফতার করে আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে।

তবে অভিযুক্ত শহিদ বেপারি তার বিরুদ্ধে আনিত অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, ‘আমাদের সাথে ওই গৃহবধূর পরিবারের সাথে জমিজমা নিয়ে দীর্ঘদিনের বিরোধ রয়েছে। সেই বিরোধকে কেন্দ্র করে করেই আমাদের ফাঁসানোর জন্য এই মামলা দায়ের করেছে।’

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here