যুক্তরাষ্ট্রের হাড়গোড় গুঁড়িয়ে দেয়ার হুমিক চীনা প্রেসিডেন্টের

0
9

Sharing is caring!

- Advertisement -

চীনকে ভাঙ্গার চেষ্টা হলে হাড়গোড় গুঁড়িয়ে দেয়ার হুঁশিয়ারি দিয়েছেন দেশটির প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং।

যুক্তরাষ্ট্রকে ইঙ্গিত করে শি বলেন, হংকং নিয়ে বেশি বাড়াবাড়ি করলে পরিণতি হবে ভয়াবহ। নেপাল সফরে বিপুল অংকের অর্থ সহায়তা ঘোষণার সময় হংকং-এর চলমান ইস্যু নিয়ে তিনি এ কথা বলেন।

শি-এর এমন হুমকির মধ্যেই হংকংয়ে বিক্ষোভে নিরাপত্তা বাহিনীর সঙ্গে ব্যাপক সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। জ্বালাও-পোড়াওয়ের দায়ে আটক করা হয়েছে বেশ কয়েকজনকে।

হংকং-এ চলমান আন্দোলনের অংশ হিসেবে রোববারও গুরুত্বপূর্ণ সরকারি-বেসরকারি স্থাপনায় ব্যাপক তাণ্ডব চালায় হংকং-এর গণতন্ত্রপন্থি বিক্ষোভকারীরা। অনেক জায়গায় থেকে লুটপাটেরও খবর পাওয়া যায়।

কিছু কালো মুখোশধারী রাস্তায় প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করলে তাদের বাধা দেয় নিরাপত্তা বাহিনী। এক পর্যায়ে ক্ষুব্ধ বিক্ষোভকারীরা পুলিশের দিকে ঢিল ছুড়লে পরিস্থিতি উত্তপ্ত হয়ে পড়ে। দুপক্ষের ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ায় পরিণত হয় রণক্ষেত্রে। এঘটনায় বেশ কয়েকজনকে আটক করা হয়।

দীর্ঘদিন ধরে চলা চীনবিরোধী আন্দোলনে বিপাকে পড়েছেন পর্যটকরা। তারা বলছেন, জ্বালাও পোড়াও কর্মসূচির কারণে শহরের যান চলাচল, দোকান পাট ও ব্যবসায় প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকায় প্রায় সময়ই দুর্ভোগে পড়তে হচ্ছে।

তারা বলছেন, কিছুক্ষণ আগে এখনকার পরিস্থিতি স্বাভাবিক ছিল। কিন্তু পাঁচ মিনিটের মধ্যে এখানে গণ্ডগোল শুরু হয়ে গেছে। পুলিশি প্রতিহত করার চেষ্টা করলে পরিস্থিতি আরও উত্তপ্ত হয়ে উঠে। এখন হংকং ভ্রমণে অনিরাপদ মনে হচ্ছে।

আমি জার্মানি থেকে এখানে ঘুরতে এসেছি। তবে সহিংসতার কারণে এখানে পরিবহন সংকটে পড়েছি।

এর মধ্যে দুই দিনের নেপাল সফরে দেশটির প্রেসিডেন্ট কেপি শর্মা অলির সঙ্গে চীনের প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং এর বৈঠকে উঠে আসে হংকং ইস্যু। চলমান আন্দোলন প্রসঙ্গে শি জিনপিং বলেন, চীন থেকে হংকংকে আলাদা করার কথা কেউ চিন্তা করলে তার পরিণতি ভয়াবহ হবে। এমনকি কোন দেশ এমন দুঃসাহসিক চিন্তা করলে তাদের অবস্থা ‘খণ্ড-বিখণ্ড’ শরীরের মতো করে দেয়া হবে। এছাড়া বৈঠকে কাঠমণ্ডুকে প্রায় পাঁচ হাজার ৬’শ কোটি রুপির অর্থ সহায়তার আশ্বসও দেন চীনা প্রেসিডেন্ট।

চার মাসের বেশি সময় ধরে চলা বিক্ষোভের মুখে বিতর্কিত অপরাধী প্রত্যর্পণ বিল বাতিল করা হলেও, এখনো আরো বেশকিছু দাবিতে আন্দোলন অব্যাহত রেখেছে হংকং-এর গণতন্ত্রপন্থি বিক্ষোভকারীরা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here