হতাশা নয় সবাই টিকার আওতায় আসবেন: পানি সম্পদ প্রতিমন্ত্রী

0
38

Sharing is caring!

পানিসম্পদ মন্ত্রনালয়ের প্রতিমন্ত্রী কর্নেল অব. জাহিদ ফারুক শামীম বলেন, বৈশিক মহামারি করোনার জন্য গোটা পৃথিবীতে সমস্যার সৃষ্টি হয়েছে। সারাপৃথিবী অর্থনৈতিকভাবে আজ হেলে পরেছে।তারপরেও কিন্তু মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ অর্থনৈতিক গতি ধরে রাখতে সক্ষম হয়েছে। তার দৃঢ় দিক নির্দেশনা ও বিভিন্ন কর্মসূচির কারণে আমরা আজ বাংলাদেশ পৃথিবীর বুকে একটা সন্মানজনক অবস্থানে দাড়িয়ে আছি।
 
রোববার (৩০ আগস্ট) বেলা ১১ টায় বরিশাল নগরীর বান্দরোডস্থ জেলা শিল্পকলা একাডেমি মিলানায়তনে করোনা পরিস্থিতিতে নিষেধাজ্ঞার সময়কালীন সরকারি তথ্য ও সেবা ৩৩৩ এ ফোন করা ব্যক্তিদের মাঝে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর উপহার বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।
 
বরিশালের জেলা প্রশাসক জসীম উদ্দীন হায়দারের সভাপতিত্বে জেলা প্রশাসনের আয়োজনে এ অনুষ্ঠানে প্রতিমন্ত্রী আরো বলেন, বিগত দেড়বছর ধরে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর বিভিন্ন প্রণোদনার মাধ্যমে আপনাদের পাশে দাড়িয়েছেন। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীকে এসব কারণেই আজ বিশ্বের দরবারে মানবতার মা বলা হয়। তিনি সবসময় খেটে খাওয়া মানুষের কথা চিন্তা করেন বলেই গত দেড়বছর ধরে আপনাদের বিভিন্ন প্রণোদনা দিয়ে যাচ্ছেন। তিনি আপনাদের কথা সবসময় চিন্তা করেন।
 
তিনি বলেন, করোনার শুরুতে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী কেবিনেট মিটিংয়ে পরিষ্কার বলেছিলেন টাকার চিন্তা তোমরা করবা না, তোমরা বিভিন্ন দেশের সাথে যোগাযোগ করো, ভ্যাকসিন আমাদের দেশে প্রথম আসতে হবে। আপনারা জানেন প্রথম দিকেই কিন্তু বাংলাদেশে ভ্যাকসিন এসেছিলো, এবং দেওয়াও শুরু হয়েছিলো। ভারতে হঠাৎ করে করোনা বেড়ে যাওয়ার জন্য তাদের যে ভ্যাকসিন দেয়ার কথা ছিলো তা সময়মতো দিতে পারেনি। কিন্তু তাৎক্ষনিকভাবে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী নির্দেশনা দিয়েই অন্যান্য দেশ থেকে ভ্যাকসিন আনার ব্যবস্থা গ্রহন করেন। ১৪ হাজার কোটি টাকা ভ্যাকসিনসহ এগুলোর জন্য ভিন্ন করে রেখেছেন তিনি। এগুলো দেখে বোঝা যায় মাননীয় প্রধানমন্ত্রী সারাদেশের মানুষের জন্য কতো চিন্তা করেন।
 
প্রতিমন্ত্রী বলেন, আজ আমার আপনাদের প্রতি আহবান থাকবে, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী যেহেতু আপনাদের কথা চিন্তা করে, তাহলে আমাদেরও নাগরিক হিসেবে উচিত যাকে যে দায়িত্ব দেয়া হবে, সেই দায়িত্ব সঠিকভাবে পালন করবো এবং মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর হাতকে শক্তিশালী করবো। আজ যারা এই মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর উপহার সামগ্রী গ্রহন করবেন তাদের প্রতি আহবান থাকবে, আপনারা সরকারের দেয়া উপহারের প্রতি শুধু অপেক্ষা করবেন না, আপনাদের নিজের পায়ে দাড়াতে হবে, আপনাদের কষ্ট করতে হবে। সাময়িক উপহার সামগ্রী দিয়ে আপনাদের চিন্তামুক্ত করা হলো, যা দিয়ে হয়তো আপনার পরিবারের ৭,৮,১০ দিন চলবে। আর সরকার যে এই সাহায্যটা দেয়ার চেষ্টা করছে এটাই বড় কথা। কিন্তু আপনাদের নিজের পায়ে দাড়াতে হবে, আপনাদেরকে খেটে খেতে হবে। আপনারা যদি শুধু অপেক্ষা করেন সরকার কখন সাহায্য দিবে, সেটা কিন্তু সারাজীবন বা সারাবছর দেয়া সম্ভব হবে না। আসুন আজ এই দিনে আমরা উপহার সামগ্রীও গ্রহন করি এবং একইসাথে প্রতিজ্ঞাবজ্ঞ হই নিজেরা খেটে খাবো যাতে করে সরকারের ওপর আমাদের নির্ভরশীল হয়ে না থাকতে হয়।
 
তিনি বলেণ, বিগত ১০ বছর আগেও দেশের অর্থণৈতিক অবস্থা খুব খারাপ ছিলো। আজ আমাদের বাংলাদেশ সেই তলাবিহীন ঝুড়ি নেই। বাংলাদেশ আজ অর্থনৈতিকভাবে অনেক স্বাবলম্বী হয়েছে।আমরা সল্পোউন্নত দেশ থেকে উন্নয়নশীল দেশে এসেছি।আমরা এরপর মধ্যম আয়ের দেশ এবং ৪১ সালের মধ্যে সমৃদ্ধশালী দেশের কাতারে পৌছাতে সক্ষম হবো। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী সেই লক্ষ্য স্থির করেছেন।সেই লক্ষ্যবস্তুতে পৌছাতে হলে আমাদের যার যার দায়িত্ব তাকেই পালন করতে হবে এবং নিজেদের খেটে খেতে হবে। আপনারা যদি সমৃদ্ধশালী দেশের সুযোগসুবিধা উপভোগ করতে চান তাহলে আমাদের স্বাস্থ্যের প্রতি খেয়াল রাখতে হবে।
 
এসময় তিনি সকলকে মাস্ক ব্যবহার নিশ্চিত করার আহবান জানিয়ে বলেন প্রশাসনের কেন জোড় করতে হবে? আমরা তো সবাই এ দেশের নাগরিক, আমাদের সবাইকে নিজের ভালো বুঝতে হবে। আপনাদের প্রতি আহবান থাকবে দেশের সু-নাগরিক হিসেবে সরকার ও স্বাস্থ্য বিভাগ থেকে প্রদত্ত নির্দেশনাগুলো যথাযথভাবে পালন করুন।
 
এসময় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বরিশাল মেট্রোপলিটন পুলিশের কমিশনার মোঃ শাহাবুদ্দিন খান-বিপিএম(বার), অতিরিক্ত রেঞ্জ ডিআইজি একে এম এহসান উল্লাহ, অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার (সার্বিক) মোঃ আব্দুর রাজ্জাক, জেলার পুলিশ সুপার মোঃ মারুফ হোসেন-পিপিএম, মুক্তিযোদ্ধা কেএসএ মহিউদ্দিন মানিক বীর প্রতীক, বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের পরিচালক আলমগীর খান আলো।
 
আরো উপস্থিত ছিলেন বরিশাল মহানগর যুবলীগের যুগ্ম আহবায়ক মাহমুদুল হক খান মামুন,মহানগর আ’লীগের সাবেক সহ-সভাপতি মীর আমির উদ্দিন মোহন,বিসিসি’র ২২নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর আনিসুর রহমান দুলাল,বিসিসি’র ১নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর আমীর বিশ্বাস, বিসিসি’র ২৪নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর আনিস শরীফ, সদর উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান এ্যাড.মাহবুবুর রহমান মধু,মহানগর যুবলীগের সদস্য মিজানুর রহমান মিল্টন, জেলা ছাত্রলীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি জোবায়ের আব্দুল্লাহ জিন্নাহ,২১নং ওয়ার্ড যুবলীগের সভাপতি মোস্তাফিজুর রহমান রানা, শায়েস্তাবাদ ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি মামুন তালুকদার, কেন্দ্রীয় যুবলীগের সাবেক সদস্য ইফতেখার বাবু,২০নং ওয়ার্ড আ’লীগের সাবেক সভাপতি মনিবুর রহমান, ২৩নং ওয়ার্ড আ’লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক এ্যাড.আক্তার হোসেন রিপন প্রমুখ।
(Visited 1 times, 1 visits today)

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here